English
রবিবার ০৫ ফেব্রয়ারি ২০২৩
...

অযাচিত মন্তব্যে বন্ধুত্ব নষ্ট করবেন নাঃ কাদের

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, শুক্রবারঃ বাংলাদেশের নির্বাচন ও রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকতে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, "বন্ধুত্বটা নষ্ট করবেন না। আমরা আপনাদের সঙ্গে বন্ধুত্ব চাই।" আজ শুক্রবার সকালে ধানমন্ডিতে দলের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২২তম জাতীয় কাউন্সিলের প্রথম প্রস্তুতি সভায় এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

কাদের বলেন, "আমেরিকা, ব্রিটেনের চিত্র তুলে ধরে কাদের বলেন, আপনাদের চেয়ে আমরা ভালো আছি। আপনাদের বিষয়ে আমরা হস্তক্ষেপ করি না। আপনারাও অহেতুক হস্তক্ষেপ করতে আসবেন না। কারও ফরমায়েশ, হস্তক্ষেপ শেখ হাসিনা শুনবেন না। তিনি আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় পান না।" এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আন্তর্জাতিক সম্পাদক ড. শাম্মী আহমেদসহ অভ্যর্থনা উপ-কমিটির সদস্যরা।

আমরা আপনাদের সঙ্গে বন্ধুত্ব চাই। আমাদের অতীতের অনেক বেদনা আছে, পঁচাত্তরে, একাত্তরে। তারপরও আমরা বন্ধুত্ব চাই। কিন্তু বন্ধুত্ব এ রকম করলে তো ফাটল ধরবে। সেটাতে কারো লাভ নেই। সবারই লেনদেন আমাদের আছে। অহেতুক কেন... এসব কথা বলছেন, বলেন কাদের।

তিনি আরও বলেন, "ম্যাস শুটিং হচ্ছে সপ্তাহে অন্তত দুটি। একেকটাতে ৫ জন, ১০ জন। ১৯টি শিশু একটি ম্যাস শুটিংয়ে মারা গেছে। আপনারা মানবাধিকারের কথা বলেন! আর পুলিশকে ধরা হয়েছে, তারা যথা সময়ে সিকিউরিটি দেয়নি। দিলে এ ঘটনা ঘটতো না। আমাদের আদালতপাড়া নিয়ে কথা বলেন, আপনাদের ওখানে কী হয়!"

এর আগে বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাস রাজধানী ঢাকায় ভয়ভীতি প্রর্দশন ও রাজনৈতিক সহিংসতার খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করে আইনের শাসনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়ার আহ্বান জানান। বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) পিটার হাস দূতাবাসের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজের মাধ্যমে এক বার্তায় বলেন, ."আমরা ঢাকায় ভয়ভীতি ও রাজনৈতিক সহিংসতার খবরে উদ্বিগ্ন এবং আইনের শাসনকে সম্মান করার জন্য সহিংসতা, হয়রানি এবং ভীতি প্রদর্শন থেকে বিরত থাকার জন্য সবাইকে আহ্বান জানাচ্ছি।"

তিনি বলেন, "তারা সরকারি কর্তৃপক্ষকে সহিংসতার এই প্রতিবেদনগুলো তদন্ত করতে এবং মত প্রকাশের মৌলিক স্বাধীনতা, সংগঠন এবং শান্তিপূর্ণ সমাবেশকে রক্ষা করতে উৎসাহিত করেন। রাষ্ট্রদূত নয়াপল্টনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষে হতাহত ব্যক্তিদের পরিবারের প্রতিও সমবেদনা জানান।"




মন্তব্য

মন্তব্য করুন