English
মঙ্গলবার ০৭ জুলাই ২০২০
...

ইউপি চেয়ারম্যান এবং ৬ সদস্য বরখাস্ত 

ফরিদপুর জেলা

ঢাকা, ২০ মে ২০২০, বুধবার: ফরিদপুর জেলার  আলফাডাঙ্গা উপজেলার দুই নম্বর গোপালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. ইনামুল হাসান এবং ৬ জন  ইউপি সদস্যকে করোনা কালের চাল ও ত্রাণ  আত্মসাত এবং অন্যান্য দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। 

স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব (ইউনিয়ন পরিষদ ১ শাখা) মো. ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক ফ্যাক্সবার্তায় এ বিষয়ে আজ পৃথক পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

বরখাস্তকৃত ছয় ইউপি সদস্য হলো এক নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ওবায়দুর রহমান, দুই নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য বাকিয়ার রহমান, চার নম্বর ওয়ার্ডের ইব্রাহীম শেখ, পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের রেজাউল করিম, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ওলিয়ার রহমান এবং সংরক্ষিত (৪,৫ ও ৬) আসনের মহিলা ইউপি সদস্য স্বপ্না বেগম।

প্রজ্ঞাপন সূত্রে জানা যায় যে, ইউপি চেয়ারম্যান ইনামুল হাসানের বিরুদ্ধে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির সুবিধাভোগীদের... তালিকা প্রণয়নে অনিয়ম, চাকরি দেওয়ার নামে অর্থ আত্মসাৎ, আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর প্রদানের নামে অর্থ আদায়, এলজিএসপি প্রকল্পের অর্থ আত্মসাৎ এবং ইউপি ট্যাক্সের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। আর ৬ জন ইউপি সদস্যের নামেও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল ও ভিজিডির চাল আত্মসাৎসহ বিভিন্ন অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। 

অভিযুক্ত ও সাময়িকভাবে বরখাস্তকৃত এসব জনপ্রতিনিধিদের কেন চূড়ান্তভাবে অপসারণ করা হবে না, তা ১০ কার্যদিবসের মধ্যে ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগে জবাব দিতে বলা হয়েছে।

জানা যায়, ফরিদপুর জেলা প্রশাসক উপরোক্ত বরখাস্তকৃত ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে আনীত এসব অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে সুপারিশ পেশ করেছিলেন।

উল্লেখ্য, করোনাকালে এযাবৎ চাল ও ত্রাণ আত্মসাত, দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগে সারাদেশে এনিয়ে মোট ৬৬ জন জনপ্রতিনিধিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। 




মন্তব্য

মন্তব্য করুন