English
মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর ২০২০
...

বাংলাদেশ তৈরি করেছে বিশ্বমানের ভেন্টিলেটর

ভেন্টিলেটর

ঢাকা, ২৮ এপ্রিল ২০২০, মঙ্গলবারঃ করোনা মহামারি মোকাবিলায় আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে বিশ্বখ্যাত মেডিকেল যন্ত্রপাতি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান মেডট্রনিক্স ও ওয়ালটনের কারিগরি সহযোগিতায় দেশেই তৈরি হল বিশ্বমানের পিবি ৫৬০ মডেলের ভেন্টিলেটর।

আজ অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ তথ্য জানান। এ সময় তিনি স্বল্প সময়ের মধ্যে ভেন্টিলেটর তৈরি করায় ওয়ালটন এবং মেডট্রনিক্সকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, "এগুলো ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতরে পাঠানো হবে। তাদের ছাড়পত্র পাবার পরই পরীক্ষামূলক ও বানিজ্যিক উৎপাদনে যাওয়া যাবে।" বর্তমানে চীন থেকে একটি ভেন্টিলেটর আমদানি করতে খরচ হয় অন্তত ৭ লাখ টাকা। আর ইউরোপ থেকে আনতে খরচ হয় ১৮ থেকে ২০ লাখ টাকা।

তিনি জানান, "ফাংশনাল প্রোটোটাইপের তিনটি ভেন্টিলেটরের মধ্যে একটি ওয়ালটন মেডট্রনিক্সের সাথে তৈরি করেছে। অন্য দুটি ওয়ালটনের নিজস্ব উদ্ভাবনী। মেডট্রনিক্সের সাথে তৈরিকৃত এ ভেন্টিলেটরের নাম দেওয়া হয়েছে ডব্লিউপিবি ৫৬০। আর ওয়লটনের নিজস্ব উদ্ভাবনে তৈরিকৃত ভেন্টিলেটরের নাম "ওয়ালটন কোভিড বিল্ড ভেন্টিলেটর ২০২০" বা "ডব্লিউসিভি-২০... এবং ডব্লিউএবি-২০।"

প্রতিমন্ত্রী বলেন, "গত ৩১ মার্চ একটি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মেডিট্রনিক্স তাদের পিবি-৫৬০ মডেলের ভেন্টিলেটরের পেটেন্ট, ডিজাইন ও সোর্স কোড তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের কাছে হস্তান্তর করে।"  ক্লিনিক্যাল টেস্টিংয়ের পরেও আর কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষা বা কোনো সংস্থার অনুমোদন লাগবে কিনা সেটি স্বাস্থ্য অধিদফতর ঠিক করবে।

ওয়ালটনের প্রতিনিধি গোলাম মোর্শেদ বলেন, "এফডিএ সার্টিফাইড এ ভেন্টিলেটরটির যন্ত্রাংশের যোগান দিচ্ছে মেডট্রনিক। তারা পাঁচটি দেশের ৫টি কোম্পানীর সাথে যৌথ উদ্যোগে উৎপাদনে যাওয়ার ব্যাপারে একমত হয়। "মেইড ইন বাংলাদেশ" ট্যাগযুক্ত এ ভেন্টিলেটর সংযোজন হবে ওয়ালটনের কারখানায়। এরইমধ্যে ভেন্টিলেটর উৎপাদনের জন্যে যন্ত্রাংশ আমদানির প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তবে সেসব যন্ত্রপাতি দেশে এসে পৌঁছাতে মে মাসের শেষ নাগাদ লেগে যাবে বলে জানান ওয়ালটনের এই ভেন্টিলেটর প্রকল্প-প্রধান প্রকৌশলী।

অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি সচিব এন এম জিয়াউল আলম, এলআইসিটি প্রকল্পের আইটি-আইটিইএস পলিসি অ্যাডভাইজার সামি আহমেদ, ওয়লটনের ভেন্টিলেটর প্রকল্প প্রধান প্রকৌশলী গোলাম মোর্শেদ, ওয়ালটনের পরিচালক লিয়াকত আলী এবং মেডট্রনিক্সের প্রতিনিধিরা।




মন্তব্য

মন্তব্য করুন