English
বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
...

সরকারের প্রধান লক্ষ্য কৃষকদের অধিকার রক্ষা করা: প্রধানমন্ত্রী 

ঢাকা, ৬ নভেম্বর ২০১৯, বুধবারঃ বাংলাদেশ কৃষক লীগের ১০ম জাতীয় ত্রিবার্ষিক কাউন্সিলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেপ্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেছেন, "সরকারের প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে, কৃষকদের অধিকার রক্ষা করা। কারণ, খাদ্য ও পুষ্টি কৃষি সরবরাহ করে কৃষিই আমাদের বাঁচিয়ে রেখেছে।"    


আজ ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় সংগীতের সঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কবুতর ও বেলুন উড়িয়ে কৃষক লীগের ত্রিবার্ষিক কাউন্সিলের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা আরও বলেন, "সরকারবাংলাদেশকে একটি উন্নত ও শিল্পোন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তোলার পথে কৃষি ও কৃষকদের পেছনে ফেলে রাখবে না। তাঁর সরকার কৃষকদের সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে সব উন্নয়ন কর্মসূচি গ্রহণ করে। আমরা উন্নত হব, তবে আমরা আমাদের কৃষক ও কৃষিকে বাদ না দিয়ে আমরা শিল্পোন্নত হয়ে উঠব।" 


কৃষক লীগের এ সম্মেলনে সর্বভারতী কিষাণ সভার সাধারণ সম্পাদক অতুল... কুমার অঞ্জন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, কৃষক লীগের সভাপতি মোতাহের হোসেন মোল্লা এবং সম্পাদক খন্দকার শামসুল হক রেজা প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে সাংগঠনিক প্রতিবেদন পাঠ করেন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং শোক প্রস্তাব পাঠ করেন দপ্তর সম্পাদক নাজমুল ইসলাম পাটোয়ারী।

উল্লেখ্য, ১৯৭২ সালের ১৯ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান “কৃষক বাঁচাও ,দেশ বাঁচাও” এই শ্লোগান নিয়েকৃষক লীগ প্রতিষ্ঠা করেন। আর এই সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নির্বাচিত হন বঙ্গবন্ধুর ভগ্নিপতি এবং সাবেক চিফ হুইপ আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহর পিতা, বঙ্গবন্ধু সরকারের পানিসম্পদ মন্ত্রী ১৫ আগষ্টের অন্যতম শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত।

কৃষক লীগেরসর্বশেষ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয় ২০১২ সালের ১৯ জুলাই। আজ ১০ম জাতীয় ত্রিবার্ষিক কাউন্সিলে ১১১ সদস্য বিশিষ্ট নবনির্বাচিত কমিটিতে সভাপতি নির্বাচিত হন মোতাহের হোসেন মোল্লা আর সাধারণ সম্পাদক হন খন্দকার শামসুল হক রেজা।




মন্তব্য

মন্তব্য করুন