English
বুধবার ০৮ জুলাই ২০২০
...

সারাবিশ্বে সুস্থ্য হলেন ২৬ লক্ষ করোনারোগী

করোনাযুদ্ধ

নিউইয়র্ক, ২৯ মে ২০২০, শুক্রবার: সারাবিশ্বে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ২৬ লক্ষ সুস্থ্য হলেন।

ওয়ার্লডোমিটার ডট ইনফো'র পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত ২৪ ঘন্টায় ৮২ হাজার ৩৯৪ জন আর এনিয়ে মোট সুস্থ্যতা লাভ করেছেন ২৬ লক্ষ ৮ হাজার ৪৩৯ জন। শনাক্ত করা হয়েছে ৪৫ হাজার ৬৭ জন। আর গত ২৪ ঘন্টায় নতুন মারা গেছেন ৫ হাজার ৯৯২ জন। আর এ নিয়ে সারাবিশ্বে মোট ৩ লক্ষ ৬১ হাজার ৫৪৯ জন মারা গেলেন।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্তে, মৃত্যু এবং সুস্থ্যতায় সব দিক মিলে শীর্ষে আছে অন্যতম শীর্ষ পরাশক্তি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। মোট জনসংখ্যা ৩৩ কোটি ৮ লক্ষ ২৭ হাজার ৫৯৭ জন আর এযাবৎ সে দেশে সর্বমোট শনাক্ত হয়েছে ১৭ লক্ষ ৬৮ হাজার ৪৬১ জন, মৃত্যুবরণ করেছেন ১ লক্ষ ৩ হাজার ৩৩০ জন। মোট ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছেন ১৭ হাজার ২০২ জন আর মোট সুস্থ্যতা ফিরে পেয়েছেন ৪ লক্ষ ৯৮ হাজার ৭২৫ জন।

সারাবিশ্বে দ্বিতীয় সর্বচ্চ আক্রান্তের দেশ পৃথিবীর অন্যতম অর্থনৈতিক শক্তিধর দক্ষিণ আমেরিকার সবচেয়ে জনবহুল, জনসংখ্যায় বিশ্বের ষষ্ঠতম দেশ এবং আয়তনে অন্যতম বৃহত্তম দেশ ব্রাজিল। এদেশের মোট জনসংখ্যা ২১ কোটি ২৪ লক্ষ ২২ হাজার ১৫২। এখানে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লক্ষ ৩৮ হাজার ৮১২ জন। এরমধ্যে মারা গেছেন সর্বোচ্চ ষষ্ঠতম দেশ হিসাবে ২৬ হাজার ৭৬৪ জন। এছাড়া মোট ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছেন ৮ হাজার ৩১৮ জন এবং সুস্থ্যতা লাভ করে বাড়ি ফিরেছেন ১ লক্ষ ৯৩ হাজার ১৮১ জন।

পৃথিবীর সর্ববৃহত্তম আয়তন এবং ১৪ কোটি ৫৯ লক্ষ ২৮... হাজার ৯৯৬ জন নিয়ে জনসংখ্যায় নবমতম দেশ রাশিয়া আক্রান্তে তৃতীয় স্থানে আছে, মোট ৩ লক্ষ ৭৯ হাজার ৫১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৪ হাজার ১৪২ জন। এছাড়া মোট ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছেন ২ হাজার ৩০০ জন এবং সুস্থ্যতা লাভ করে বাড়ি ফিরেছেন ১ লক্ষ ৫০ হাজার ৯৯৩ জন।

উল্লেখ্য, গত বছর ডিসেম্বর ২০১৯ সর্ব প্রথম নোভেল করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ ভাইরাস চীনের উহান এলাকায় ধরা পড়ে এবং মহামারীর প্রাদুর্ভাব নিয়ে খুব দ্রুত সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে। বছরের শেষ দিন অর্থাৎ ৩১ ডিসেম্বর উহানের স্বাস্থ্য বিভাগ সেখানে নতুন একটি ভাইরাসে এক ডজনের মোট মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানায়।

এরপর ১১ জানুয়ারী সরকার উহানের বাজারে নিয়মিত গমনকারী ৬১ বছরের একজন বয়স্ক মানুষ এই নতুন রোগের কারনে মারা গেছেন বলে জানায়। এরপর ২০ জানুয়ারী বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসেবে ২৮২ জনকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হিসাবে শনাক্ত করা হয় চীন সহ আরো তিনটি দেশে, এর মধ্যে চীনে ২৭৮ জন, থাইল্যান্ডে ২ জন, জাপানে ১ জন এবং দক্ষিণ কোরিয়ায় ১ জন।

১৭ জানুয়ারীর মধ্যে সমগ্র ইউরোপ মহাদেশে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে এই মহামারি ভাইরাস। ১৮ মার্চের মধ্যে ২৫ কোটির ওপরে মানুষ লোক ডাউনে আটক পরে যায়। ২৪ মে ২০২০ করোনা ভাইরাস মুক্ত সর্বশেষ ক্ষুদ্র দেশ মন্টেনিগ্রোতে প্রথম এই ভাইরাস ধরা পড়ে। ১৩ জানুয়ারী ২০২০ প্রথম এই ভাইরাস ধরা পড়ার পর ২৭ মে ২০২০ সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়া এই মহারিতে আক্ৰান্ত ও মৃত্যুতে সর্বাধিক সংখ্যক মানুষের সংখ্যা রিপোর্ট করা হয়।




মন্তব্য

মন্তব্য করুন